bdnewstime,করোনাভাইরাসের নতুন ছয়টি লক্ষণ

করোনাভাইরাসের নতুন ছয়টি লক্ষণ

আন্তর্জাতিক

করোনাভাইরাসের নতুন ছয়টি লক্ষণ

করোনাভাইরাস মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বের প্রায় সব দেশেই। আক্রান্ত আর মৃত্যুর মিছিল থামার কোনো লক্ষণ নেই। তবে করোনায় আক্রান্তদের শরীরে প্রকাশ পাওয়া উপসর্গগুলোর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে আরো নতুন ছয়টি লক্ষণ।

রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্র (সিডিসি) কোভিড-১৯ এর বিভিন্ন লক্ষণের সঙ্গে আরো ছয়টি যুক্ত করেছে। এতে প্রাণঘাতী ব্যাধির উপসর্গসমূহের সংখ্যা তিনগুণে গিয়ে দাঁড়িয়েছে। নতুন যেসব লক্ষণ সিডিসিতে যুক্ত হয়েছে তা জেনে নিন-

গন্ধ বা স্বাদ নিতে অক্ষমতা

বর্তমানে করোনায় আক্রান্ত অনেক রোগীর মধ্যে এই লক্ষণটি প্রকাশ পেয়েছে। যারা গন্ধ ও স্বাদ নেয়ার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেছে। মার্চের শেষের দিকে লক্ষণটি বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ব্রিটেন জুড়ে রোগীদের মধ্যে উপস্থিত ছিল। এমন লক্ষণ সম্পর্কে যেহেতু কারো তেমন জানা ছিল না, তাই বুঝে ওঠার আগেই আক্রান্তের সংখ্যা আরো বেড়ে যায়।

শরীর তীব্র ঠাণ্ডা হয়ে যাওয়া

কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হলে শরীরে জ্বর থাকাটা খুবই সাধারণ একটি লক্ষণ। তবে জানেন কি? এই সময় শরীরে তীব্র ঠাণ্ডা অনুভূত হতে পারে। এর ফলে তীব্র কাঁপুনি হওয়ার লক্ষণও অনেকের ক্ষেত্রে প্রকাশ পেয়েছে। এই লক্ষণটি বিখ্যাত একজন সংবাদ প্রতিবেদকের মধ্যে প্রকাশ পায়। জানা যায়, প্রচণ্ড ঠাণ্ডা অনুভব করে কাঁপতে কাঁপতে তার দাঁত নাকি ভেঙে যায়।

পেশি ব্যথা

বেশিরভাগ বয়ষ্করা কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হওয়ার পর এই সমস্যায় ভুগেছেন বলে জানা গেছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় ১৪ দশমিক আট শতাংশ করোনা রোগীর মধ্যে এই লক্ষণটি গুরুতর প্রভাব ফেলেছে। পেশি ব্যথা ঘটে থাকে যখন ভাইরাস শরীরের টিস্যু এবং কোষগুলোতে আক্রমণ করে।

মাথাব্যথা

সর্দি-জ্বর হলে মাথাব্যথা হওয়া খুব সাধারণ বিষয়। তবে সর্দির সঙ্গে যখন শ্বাস-প্রশ্বাসে সমস্যা দেখা দেয় তখন তা করোনাভাইরাসের ইঙ্গিত দেয়। নতুন অনুসন্ধানে দেখা গেছে, মাথা ও চোখের চারপাশে ব্যথা ও চাপ অনুভূতি হতে পারে এবং তা প্রচণ্ডভাবে।

গোলাপি চোখ

কোভিড-১৯ এ আক্রান্তের চোখ গোলাপি হতে পারে। গবেষণায় দেখা গেছে, শ্বাস প্রশ্বাসের সঙ্গে ছাড়াও চোখের মাধ্যমেও ভাইরাসটি শরীরে ছড়াতে পারে। জ্যামার চক্ষুবিদ্যায় প্রকাশিত একটি সমীক্ষায় উল্লেখ করা হয়েছে, চোখের মাধ্যমে ভাইরাসটি সংক্রমণ ঘটালে আক্রান্তের চোখ গোলাপি হতে পারে।

গলা ব্যথা

গলা ব্যথা সাধারণ সর্দি-কাশির সময়ও হতে পারে। তবে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হলে শুকনো কাশির সঙ্গে প্রচণ্ড গলা ব্যথা হতে পারে। করোনাভাইরাসের প্রভাবে প্রায় ৬০ শতাংশ রোগী গলা ব্যথা এবং শুষ্ক কাশিতে ভুগেছে বলে জানা গেছে বিভিন্ন প্রতিবেদনে।

সূত্র: ওয়াশিংটনপোস্ট, টাইমসঅবইন্ডিয়া

নিউজিল্যান্ড পুরস্কৃত করল সাত ক্রিকেটারকে

Share Now

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *