bd nes time, ২৬ বছরে ৪৮ ধর্ষণ

২৬ বছরে ৪৮ ধর্ষণ

জাতীয়

মাত্র ১৫ বছর বয়স থেকে বিকৃত যৌন লালসায় পড়ে ধর্ষণ শুরু করেন।

আর ২৬ বছর বয়সেই তিনি ৪৮ নারীকে ধর্ষণ করেছেন। কখনো প্রেমের ফাঁদে ফেলে আবার কখনো টাকার বিনিময়ে এসব ধর্ষণ করেছেন তিনি। মিথ্যা কাবিন বানিয়ে বিয়ে করেছেন দুটি। মিথ্যা সংসারে প্রথম স্ত্রীর ঘরে রয়েছে দুই বছরের একটি কন্যা সন্তান। আর এখন দ্বিতীয় স্ত্রীকে হত্যার দায়ে পুলিশ হেফাজতে বন্দি তিনি।

নারায়ণগঞ্জ আদালতের বিজ্ঞ ম্যাজিস্ট্রেট কাউসার আলমের আদালতে মঙ্গলবার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়ে স্ত্রী হত্যার দায় স্বীকারসহ ধর্ষণের এমন চাঞ্চল্যকর কথা জানিয়েছেন জসিম উদ্দিন রানা (২৬)। ধর্ষণসহ একের পর এক অপকর্মের অপরাধে ছোটকালেই এলাকা ছাড়তে বাধ্য হন রানা। পরিবার থেকেও বিচ্ছিন্ন করে দেয়া হয়।

জসিম উদ্দিন রানা বরগুনার পাথরঘাটা থানার পদ্মা করমজাতলা এলাকার আব্দুল জলিলের ছেলে। নিজের আসল পরিচয় গোপন করে এবং ছদ্মনামে গত চার বছরে দুটি মিথ্যা বিয়েসহ ৪৮ নারীকে ধর্ষণ করেছেন তিনি। ৫ মার্চ রাতে দ্বিতীয় স্ত্রীকে হত্যা করেন রানা। স্ত্রীকে হত্যার দায়ে বরগুনায় রানার নিজ বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। নিহত স্ত্রী সুরভী আক্তার (১৯) মাদারীপুরের সদর থানাধীন চরমুগুরিয়া এলাকার দেলোয়ার হোসেনের মেয়ে।

রানা জানিয়েছেন, ‘সুরভি নকল বিয়ে ও তার বহু নারীর সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্কের বিষয়টি টের পেয়ে আসল কাবিন করতে চাপ দেন। অন্যথায় তার পুরুষাঙ্গ কেটে ফেলার হুমকি দেন। এতে ঘাবড়ে গিয়ে রানা সুরভীকে বৃহস্পতিবার রাতে কোকাকোলার সঙ্গে নেশাজাতীয় ট্যাবলেট খাইয়ে অচেতন করে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে হত্যা করেন। পরে লাশ ঘরে রেখে বাইরে থেকে তালা দিয়ে বরগুনায় পালিয়ে যান। এসময় সুরভীর বাবা দেলোয়ার হোসেনকে মোবাইলে তার মেয়ের মৃত্যুখবর জানান।’

বিস্তারিত

Share Now

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *